1.5 C
New York

সিলেট নগরে সবজির ট্রাকে মাসে কোটি টাকার চাঁদাবাজি

Published:

গত ১৫ ও ১৬ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত তামাবিল-সিলেট সড়কের বটেশ্বর, শাহপরান, মেজরটিলা ও টিলাগড় এলাকায় সরেজমিন দেখা গেছে, পাঁচ থেকে ছয়জন তরুণ মোটরসাইকেল নিয়ে স্থানগুলোতে টহল দেওয়ার মতো ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কয়েকজনের মাথায় হেলমেট ছিল। ট্রাক বা পিকআপ এলে ওই তরুণেরা যানগুলো থামিয়ে চাঁদা আদায় করছেন। প্রথম দিন দুই ঘণ্টায় অন্তত ১৪টি ট্রাককে হাতের ইশারায় থামালেন তরুণেরা।

একইভাবে ১৭ জানুয়ারি রাত সাড়ে ১২টার দিকে ভোলাগঞ্জ-সিলেট সড়কের লাক্কাতুরা অংশে চার তরুণকে প্রাইভেটকার নিয়ে সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। রাত একটা পর্যন্ত তিনটি সবজির ট্রাক আটকে চাঁদা আদায় করতে দেখা গেল। একপর্যায়ে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে কথা বলতে চাইলে দ্রুত তাঁরা চলে যান।

ট্রাকচালক, ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, চাঁদাবাজেরা নিজেদের ছাত্রলীগের জেলা ও মহানগর পর্যায়ের শীর্ষ নেতাদের কর্মী-সমর্থক বলে পরিচয় দেন। গত চার মাসে সবজিবাহী অন্তত ১২টি যানবাহন ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলেও ভুক্তভোগীরা ভয়ে এ বিষয়ে থানায় কোনো অভিযোগ করেননি। সর্বশেষ ১ ফেব্রুয়ারি তেমুখী এলাকায় একটি ফলের ট্রাক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

সিলেট মহানগর ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আবদুর রহমান বলেন, চাঁদাবাজদের টাকা দেওয়ার প্রভাব সবজি ও ফলের দামেও পড়ছে। চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি জানিয়ে ব্যবসায়ীরা ৪ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন।

Related articles

Recent articles

spot_img