9.9 C
New York

সকাল-সন্ধ্যা ঠান্ডা দুপুরে গরম, অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে শিশুরা

Published:

সুনামগঞ্জে ভোর থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত ঠান্ডার প্রকোপ বাড়ে, সেইসঙ্গে চারদিকে ঘন কুয়াশা থাকে। পরে সকাল ১০টা থেকে শুরু হয় গরম। সন্ধ্যা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে ঠান্ডা। গত তিন-চার দিন ধরে চলছে এমন আবহাওয়া। এতে শহর থেকে শুরু করে হাওর এলাকার শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। ঠান্ডাজনিত রোগ নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শতাধিক শিশু হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

সুনামগঞ্জ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতাল ঘুরে দেখা যায়, হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে বেড রয়েছে ৫৪টি, কিন্তু শিশুরোগী ভর্তি রয়েছে শতাধিকের ওপর। ফলে অনেক শিশু হাসপাতালের বারান্দা ও মেঝেতে শুয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। এতে শিশুদের পাশাপাশি ভোগান্তিতে পড়েছেন রোগীর স্বজনরা।

নূরপুর থেকে আসা করিম মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, এক বছরের ছেলেকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছি। হটাৎ করে তার ঠান্ডা লেগে শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল। হাসপাতালে শয্যা সংকট থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে।

বেতগঞ্জ থেকে আসা সাহেদ মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের বেহাল অবস্থা, চারদিকে দূর্গন্ধ। এখানে সুস্থ মানুষ এলেও অসুস্থ হয়ে পড়বে। হাসপাতালের দিকে কর্তৃপক্ষের নজর দেওয়া উচিৎ।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. রফিকুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, হটাৎ করে হাসপাতালে শিশু রোগীর চাপ বাড়ায় চিকিৎসা সেবা দিতে আমাদের কিছুটা হিমশিম খেতে হচ্ছে। আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে এমনটা হচ্ছে। শিশুদেরকে ঠান্ডা থেকে দূরে রাখার জন্য তিনি সকলকে পরামর্শ দেন।

লিপসন আহমেদ/এফএ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।

Related articles

Recent articles

spot_img