8.4 C
New York

সংরক্ষিত বন ডুবিয়ে প্রভাবশালীদের হ্রদ, মাছ চাষ 

Published:

চট্টগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক দেলোয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘বাঁধ ভাঙার জন্য আমাদের সামর্থ্যের মধ্যে সব ধরনের চেষ্টা করেছি। কিন্তু বাঁধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা প্রভাবশালী হওয়ার কারণে সফল হইনি। অভিযোগের পর তদন্তে সত্যতা পেয়ে সংশ্লিষ্ট বিট কর্মকর্তা মামলার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। কিন্তু তৎকালীন এমপি মহোদয়ের হস্তক্ষেপে তখন মামলা করা হয়নি।’ 

বন বিভাগের অভিযোগ অস্বীকার করেন সদ্য বিদায়ী সংসদ সদস্য আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘এগুলোর সঙ্গে (বাঁধ নির্মাণ) আমার কোনো সম্পর্ক নেই। কাউকে চিনিও না। শুধু কয়েক বছর আগে একবার বেড়াতে গিয়েছিলাম।’ 

সাবেক সংসদ সদস্য কীভাবে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন জানতে চাওয়া হয়েছিল সহকারী বন সংরক্ষক দেলোয়ার হোসেনের কাছে। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সাবেক সংসদ সদস্য বন বিভাগের দায়িত্বশীলদের এক দফা উপজেলা পরিষদে ডেকে নিয়ে এবং আরেক দফা মুঠোফোনে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ না নিতে বলেছিলেন। পরিবেশ পরিস্থিতির কারণে তখন আর কোনো আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। 

এদিকে সাবেক সংসদ সদস্য বনে হ্রদ তৈরির সঙ্গে জড়িত মো. নাছির উদ্দিন ও মনজুর আলমকে চেনেন না বলে দাবি করলেও এবারের সংসদ নির্বাচনে তাঁরা তাঁর (আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী) পক্ষে প্রচারে সক্রিয় ছিলেন। বিভিন্ন কর্মসূচিতে তাঁরা উপস্থিত ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সাবেক সংসদ সদস্যের একান্ত সচিব এরফানুল করিমের সঙ্গে তোলা একাধিক ছবি দেন তাঁরা দুজন। 

স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে, নাছির উদ্দিন ও মনজুর আলম সাবেক সংসদ সদস্যের একান্ত সচিব এরফানুলের ঘনিষ্ঠ এবং আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর কর্মী। নেজামুদ্দিন নদভী তাঁর লোকজনকে নিয়ে ২০২২ সালের মার্চে ওই হ্রদে বেড়াতেও যান। তাঁদের জন্য দুপুরের খাবারের আয়োজনও করা হয়। 

এদিকে সংরক্ষিত বনে হ্রদ তৈরির বিষয়ে জানে না স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তর। লোহাগাড়ার বর্তমান ইউএনও মু. ইনামুল হাছান প্রথম আলোকে, ‘বনের জায়গা দখল করে হ্রদ নির্মাণের ঘটনা আমার জানা নেই। এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকলে জনস্বার্থে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ 

পরিবেশ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম জেলার উপপরিচালক মু. ফেরদৌস আনোয়ার প্রথম আলোকে বলেন, পরিবেশের ক্ষতি করে বাঁধ নির্মাণের বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

Related articles

Recent articles

spot_img