4 C
New York

লোহিত সাগর সংকটের যে প্রভাব পড়ছে বাংলাদেশের বাণিজ্যে

Published:

জানতে চাইলে কে এস আর এম গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার জাহান রাহাত প্রথম আলোকে বলেন, জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের তুলনা করলে এখন প্রতি টন পুরোনো টুকরা লোহার দাম ৩০ থেকে ৩৫ ডলার বেশি চাইছে সরবরাহকারীরা। ঘুরপথে আসার কারণে আগের চেয়ে ১০ থেকে ১১ দিন বাড়তি সময় লাগবে বলে সরবরাহকারীরা জানিয়েছে।

দাম বাড়ার কারণ কী, তা জানতে চাইলে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান আইএমআর বাংলাদেশের ব্যবস্থাপক ইফতেখার আহমেদ প্রথম আলোকে জানান, লোহিত সাগরের সংকটের প্রভাবে ইউরোপ-যুক্তরাষ্ট্র থেকে জাহাজ ঘুরপথে আসতে সময় বেশি লাগছে। এ জন্য যে বাড়তি ভাড়া লাগছে, তা পণ্যমূল্যের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় পণ্যের দামও বেড়েছে।

পুরোনো লোহার টুকরার মতো বস্ত্রশিল্পের কাঁচামাল তুলা আমদানিতেও কিছুটা প্রভাব পড়েছে পরিবহন সমস্যার। গত বছর দেশে ১৩ লাখ ৪৭ হাজার টন তুলনা আমদানি হয়েছিল। এর মধ্যে ১ লাখ ৬৯ হাজার টন আমদানি হয় যুক্তরাষ্ট্র থেকে, যা মোট তুলা আমদানির ১৩ শতাংশ। এ ছাড়া তুরস্ক থেকেও আমদানির ৩ শতাংশের মতো আসছে। এই দুই দেশ থেকে তুলা আমদানিতে খরচ বাড়ছে। তবে তুলার বড় অংশই আমদানি হয় ভারত, ব্রাজিল, বেনিন, অস্ট্রেলিয়া ও ক্যামেরুন থেকে। মোট আমদানির ৫৩ শতাংশ আসে এই ৫ দেশ থেকে।

বস্ত্রকলমালিকদের সংগঠন বিটিএমএর সভাপতি মোহাম্মদ আলী প্রথম আলোকে বলেন, ‘লোহিত সাগরের সংকটের পর এখন প্রতি পাউন্ড তুলা আমদানিতে চার থেকে পাঁচ সেন্ট অতিরিক্ত খরচ পড়ছে। দাম বাড়ার কারণে এখন বিকল্প দেশগুলো থেকে আমদানির চেষ্টা করছি আমরা।’

Related articles

Recent articles

spot_img