23.4 C
New York

রমজানে মক্কা বিজয়: মানবতার শ্রেষ্ঠ বিজয়

Published:

১৯ রমজান মক্কা বিজয়ের দিন সকালে নবীজি (সা.) সাহাবায়ে কিরামের বিভিন্ন দলকে মক্কার বিভিন্ন দিক থেকে প্রবেশের নির্দেশ দিলেন এবং বললেন, ‘কাউকে আক্রমণ করবে না।’ ইতিপূর্বে ‘মুতা’ অভিযানেও তিনি নির্দেশ দিয়েছিলেন, ‘কোনো সাধু-সন্ন্যাসীকে হত্যা করবে না, বালক-বালিকা ও শিশুদের হত্যা করবে না, নারীদের হত্যা করবে না, বৃক্ষনিধন করবে না, শস্যক্ষেত্র ধ্বংস করবে না, ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করবে না এবং আত্মসমর্পণকারীকে আঘাত করবে না।’ এভাবে জানের দুশমনদের প্রাণের দোসর বানিয়ে মানবসভ্যতার নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করলেন তিনি। যেখানে উদারতার আকাশে ক্ষমার শুকতারা দীপ্তি ছড়াচ্ছে।

রাসুলুল্লাহ (সা.) হজরত উসামা ইবনে জায়েদের সঙ্গে উটে চড়ে, অবনত মাথায় সবার শেষে মক্কা মুকাররমায় প্রবেশ করলেন। হজরত (সা.) মক্কাবাসীদের নিয়ে একটি সভা করলেন। সভায় ভাষণে তিনি সাম্য, মৈত্রী ও একতার কথা বললেন, ‘হে কুরাইশগণ! অতীতের সব ভ্রান্ত ধারণা মন থেকে মুছে ফেলো, কৌলীন্যের গর্ব ভুলে যাও, সবাই এক হও। সব মানুষ সমান, এ কথা বিশ্বাস করো।’ আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘হে মানুষ! আমি তোমাদের সবাইকে এক নারী ও পুরুষ হতে সৃষ্টি করেছি এবং তোমাদের গোত্রে ও সম্প্রদায়ে পৃথক করেছি, যাতে তোমরা পরস্পরে পরিচিত হতে পারো। নিশ্চয়ই তোমাদের মধ্যে আল্লাহর কাছে সেই বেশি সম্মানিত, যে বেশি পরহেজগার।’ (সুরা-৪৯ হুজুরাত, আয়াত: ১৩)।

  • মুফতি মাওলানা শাঈখ মুহাম্মাদ উছমান গনী
    যুগ্ম মহাসচিব: বাংলাদেশ জাতীয় ইমাম সমিতি
    সহকারী অধ্যাপক: আহ্ছানিয়া ইনস্টিটিউট অব সুফিজম
    [email protected]

Related articles

Recent articles

spot_img