11.5 C
New York

যে ‘পুতিনবাদে’ মজল ক্রেমলিন | প্রথম আলো

Published:

রাশিয়াতে কর্তৃত্ববাদের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে, রাশিয়াতে জনপ্রিয়তা রয়েছে শক্তিশালী শাসকদের। ষোড়শ শতাব্দীতে রাশিয়াকে শাসন করা ইভান দ্য ট্যরিবল, অষ্টাদশ শতাব্দীতে রাশিয়াকে শাসন করা পিটার দ্য গ্রেট আর ক্যাথরিন দ্য গ্রেট ছিলেন কর্তৃত্ববাদী শাসক।

ঊনবিংশ শতাব্দীতে রাশিয়াকে শাসন করা নিকোলাস আর আলেকজান্ডারদের সরিয়ে ক্ষমতায় আসে কমিউনিস্ট পার্টি—রাজতন্ত্রের অনেক কিছু বদলে গেলেও সোভিয়েত ইউনিয়নেও থেকে যায় কর্তৃত্ববাদী শাসনের ধারা। জারদের জায়গায় রাশিয়াকে শাসন করতে শুরু করেন পার্টির সাধারণ সম্পাদকেরা।

কর্তৃত্ববাদী শাসনের পরম্পরা সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পরেও বজায় আছে, কমিউনিজমের পতনের মাধ্যমে রাশিয়াতে পুঁজিবাদ আর ‘গণতন্ত্র’ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরেও। রাশিয়ার কর্তৃত্ববাদের সর্বশেষ চরিত্র ভ্লাদিমির পুতিন—দুই যুগ ধরে যিনি রাশিয়া শাসন করছেন।

রাশিয়াতে মার্চের তৃতীয় সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রেসিডেনশিয়াল নির্বাচন। রাশিয়ানদের পছন্দের শক্তিশালী আর দুর্দমনীয় চরিত্রের প্রতিকৃতি কাজে লাগিয়ে টানা পঞ্চমবারের মতো ক্ষমতায় এসেছেন পুতিন।

পুতিনের পক্ষে কাজ করেছে কর্তৃত্ববাদী আর ক্রেমলিনে কেন্দ্রীভূত শাসনব্যবস্থা। নির্বাচনে পেয়েছেন সোভিয়েত–পরবর্তী যুগের রাশিয়াতে সবচেয়ে নিরঙ্কুশ বিজয়, তাঁর ৮৭ শতাংশ ভোটের বিপরীতে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পেয়েছে ৪ শতাংশের মতো ভোট।

দুই যুগের শাসন শেষে পুতিন এখন নিজেকে তুলনা করছেন অষ্টাদশ শতাব্দীতে পিটার দ্য গ্রেটের সঙ্গে। পুতিনের অধীনে রাশিয়ার কর্তৃত্ববাদী শাসনের দর্শন পরিচিতি পেয়েছে পুতিনইজম হিসেবে। পুতিনীয় শাসন-দর্শন রপ্তানি হচ্ছে নতুন এশিয়া আর আফ্রিকায়।

Related articles

Recent articles

spot_img