9.5 C
New York

মেঘনায় নেমে জরিমানা গুনলেন ৩০ জেলে

Published:

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনা নদীতে মাছ শিকারের দায়ে ৩০ জেলেকে আটক করা হয়েছে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানের সময় মাছ শিকারে ব্যবহৃত ৭টি নৌকা, ২ লাখ ২০ হাজার মিটার জাল ও ৬০ কেজি বিভিন্ন প্রজাতির মাছ জব্দ করা হয়েছে।

বুধবার (২০ মার্চ) দিনব্যাপী কমলনগরের মতিরহাট ও মাতাব্বরহাট এলাকার অদূরে মেঘনা নদীতে নৌ-পুলিশ ও মৎস্যবিভাগ যৌথ অভিযান চালিয়ে মাছ-জাল ও নৌকাসহ জেলেদের আটক করে।

রামগতির বড়খেরী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনিচার্জ ফেরদৌস আহমেদ রাত ৮টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত মেঘনা নদীর ১০০ কিলোমিটার এলাকা ইলিশের অভয়াশ্রম। উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস নদীতে মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে নদীতে অভিযান পরিচালনা করে ৩০ জেলেকে আটক করা হয়।

তিনি আরও জানান, আটক জেলেদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কমলনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শামসুদ্দিন মো. রেজা আটক ৩০ জেলেকে ৫ হাজার টাকা করে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করেন।

মেঘনায় নেমে জরিমানা গুনলেন ৩০ জেলে

এছাড়া জব্দ হওয়া ২ লাখ ২০ হাজার মিটার জাল প্রকাশ্যে আগুনে পুড়ে বিনষ্ট করা হয়েছে। জব্দ হওয়া ৭টি নৌকা কমলনগর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল কুদ্দুছের হেফাজতে রয়েছে। ৬০ কেজি মাছ স্থানীয় মাদরাসায় বিতরণ করা হয় বলেও জানান তিনি।

দণ্ডপ্রাপ্ত জেলেরা হলেন- আবদুল বারেক, মো. আল-আমিন, আমজাদ মাঝি, মাইনুদ্দিন, আবদুল মজিদ, মো. হান্নান, আবদুল কাদের, মো. ফিরোজ, কামাল, মো. আজগর, মো. সুমন, জাকির হোসেন, কবির হোসেন, আক্তার হোসেন, সাদ্দাম হোসেন, লোকমান হোসেন, বাহার, মো. জসিম, ইব্রাহিম খলিল, রুবেল, মো. জাহের, মো. জামান, শাহজাহান, মো. রাসেল, রিয়াজ, আল-আমিন, ইসমাইল, মো. আক্তার, মো. কামাল ও ফরহাদ। তারা সদর উপজেলার চরমনী মোহন ইউনিয়ন ও কমলনগরের চরকালকিনি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা।

নিষেধাজ্ঞাকালীন নদীতে মাছ শিকার করলে আটক জেলের অর্থদণ্ড, সবোর্চ্চ ২ বছরের কারাদণ্ড ও উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান রয়েছে। এছাড়া জেলেদের অভয়াশ্রমে মাছ শিকার থেকে বিরত রাখতে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় লক্ষ্মীপুরের ২৮ হাজার ৩৪৪ জন জেলের জন্য ২২৬৭ দশমিক ৫২ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। প্রত্যেক জেলে পরিবার দুই মাসের জন্য ৮০ কেজি চাল পাবেন। তবে লক্ষ্মীপুরে সরকারি তালিকাভুক্ত জেলের সংখ্যা ৫২ হাজার ৯৫৫ জন।

কাজল কায়েস/এফএ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।

Related articles

Recent articles

spot_img