9.6 C
New York

মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে প্রকল্প বানিয়ে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত দুই মার্কিন কিশোরীর স্বর্ণপদক জয়

Published:

বাংলাদেশে জন্ম না নিলেও মা–বাবার সূত্রে এই দুই কিশোরীর শিকড় বাংলাদেশে। ঘরে তারা বাংলায় কথা বলে। মা-বাবার কাছে মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনে তারা বড় হয়েছে।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই দুই কিশোরীর প্রকল্পে ব্রিটিশ শাসনের পরপর ভারত-পাকিস্তান সৃষ্টির ধারণা ছাড়াও আছে তৎকালীন পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের চিন্তাভাবনার ভিন্নতা, বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, চুয়ান্নর নির্বাচন, দশক ধরে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গণমানুষের অধিকার—বিভিন্ন দাবিদাওয়া, ছেষট্টির ছয় দফা, উনসত্তরের গণ–অভ্যুত্থান, সত্তরের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের বিপুল বিজয়, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ, মুক্তিযুদ্ধের নানা দিক।

অর্চিতা ও রিফাইয়া হোয়াটসঅ্যাপে জানিয়েছে, এই প্রকল্পে কারমেল হাইস্কুলের লাইব্রেরিসহ শহরের পাবলিক লাইব্রেরিতে থাকা বিভিন্ন বই, সংবাদপত্রে ছাপা হওয়া মুক্তিযুদ্ধের খবর, ফটোসাংবাদিক রশিদ তালুকদারের বিভিন্ন ছবিসহ প্রায় ২০টি রেফারেন্স ঘেঁটেছে তারা। পাশের শহর ফিশার্সে বসবাস করা বীর মুক্তিযোদ্ধা হোসেইন এম আনোয়ারের সরাসরি সাক্ষাৎকার নিয়েছে। নিউইয়র্কে বাস করা বীর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইমামের সাক্ষাৎকার নিয়েছে মেসেঞ্জারে। গত ডিসেম্বর থেকে টানা প্রায় চার মাস কাজ শেষে তারা প্রথমে ক্লাসে জমা দেয় প্রকল্প। পরে পাবলিক লাইব্রেরিতে প্রদর্শন এবং প্রতিযোগিতার রিজিওনাল স্কেলে (আঞ্চলিক পর্যায়ে) বিচারকদের সামনে প্রকল্পটি তুলে ধরে তারা।

Related articles

Recent articles

spot_img