9.2 C
New York

মায়ের জন্য, বাবার জন্য কী নিলাম

Published:

ঈদে বাড়ি ফেরার আগে অনেক সময় মা-বাবাই টাকা পাঠান কিছু কিনে নেওয়ার জন্য। এই টাকাটা নিতে ইচ্ছে করে না, জানান নাদিয়া। তিনি বলেন, ‘বাড়ির লোকের প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো কিনতে খুব বেশি তো আর খরচ হয় না। তাই নিজের আয়েই একটা কিছু করতে ইচ্ছা করে।’

পড়াশোনার ফাঁকে ছাত্র পড়িয়ে টুকটাক আয় করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজের ছাত্র রেদোয়ানুল হক। বাড়ি মাগুরায়। প্রায় তিন বছর ধরে থাকেন ঢাকার একটি হোস্টেলে। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য করোনার কঠিন সময়ে একাই এসেছিলেন এখানে। এরপরই জীবনটা কেমন যেন অন্যরকম হয়ে গেছে। রেদোয়ানুল বলেন, ‘আমার মতো যাঁদের একা একা চলা শিখতে হয় তাঁরা হয়তো বুঝবেন, পরিবার ছেড়ে আসার কিছুদিনের মধ্যেই আয় করার একটা তাড়না টের পাওয়া যায়। নিজে কিছু আয় করে পরিবারকে দিতে ইচ্ছা হয়। আর ঈদ এলে মনে হয় এই অনুভূতি অনেকটাই বেড়ে যায়। বাড়ি ফেরার আগে বাবা মা, ভাইবোনদের জন্য কিছু না কিছু নিয়ে যেতে ইচ্ছা করে।’

রাজধানীর খুব বেশি দূরে বাড়ি নয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানের ছাত্র মোহাম্মদ রহমতুল্লাহর। তবু কাজের চাপে খুব কমই বাড়ি যাওয়া হয়ে ওঠে। এই ঈদে বিহেভিয়র থেরাপিস্ট হিসেবে কর্মরত এই তরুণও ফিরে যাবেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়, তাঁর পরিবারের কাছে। তাই ফেরার আগেই তোড়জোড় করছেন কেনাকাটার। বলছিলেন, ‘যেহেতু এখানে সবকিছু বেশ সহজে পাওয়া যায়, তাই চেষ্টা করি এখান থেকেই বাড়ির সবার জন্য কিছু কিনে নিতে। তা ছাড়া ফেরার আগে কারও কোনো আবদার থাকলে মার্কেটে ঘুরে ঘুরে আগে সেগুলো কেনার চেষ্টা করব।’

Related articles

Recent articles

spot_img