24.3 C
New York

মাঝারি ভূমিকম্পের বিপদ বাড়ছে | প্রথম আলো

Published:

মাঝারি ভূমিকম্পের বিপদ বাড়ছে | প্রথম আলো

দেশের ভূমিকম্পবিশেষজ্ঞরা বলছেন, জাপান, নেপাল ও আফগানিস্তানের মতো বাংলাদেশে শক্তিশালী ভূমিকম্পের খুব বেশি আশঙ্কা নেই। দেশের ভেতরে ৬ থেকে ৭ মাত্রার ভূমিকম্প হওয়ার ঘটনাও খুব কম। দেশের বিশেষজ্ঞরা এ কথা অনেক দিন ধরে বলে আসছেন। অবশ্য রাজধানীসহ দেশের বড় শহরগুলোর জন্য মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্প বিপদ ডেকে আনতে পারে বলেও তাঁরা মনে করছেন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষক মো. আবদুল্লাহ আল জামান ও নুসরাত আল জামানের করা এক গবেষণায় ১৯৭৬ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের ভেতরে সৃষ্টি হওয়া ভূমিকম্পগুলোর ধরন পর্যালোচনা করা হয়েছে। তাতে তাঁরা দেখতে পেয়েছেন, বাংলাদেশের ভেতরে সৃষ্টি হওয়া ভূমিকম্পগুলো মূলত ৪ থেকে ৫ মাত্রার। ওই ৪০ বছরে বাংলাদেশে মোট ২৮৪টি ভূমিকম্প সৃষ্টি হয়, যার ৭৭ শতাংশ ৪ থেকে ৫ মাত্রার। আর মাত্র ১২ শতাংশ ভূমিকম্প ৫ থেকে ৬ মাত্রার মধ্যে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও ভূমিকম্পবিশেষজ্ঞ মাকসুদ কামাল প্রথম আলোকে বলেন, ‘লক্ষ্মীপুরের ভূমিকম্পটি আমাদের এখানে মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্পের বিপদ বেড়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে। এর আগে আমাদের এখানে সাধারণত ভূ–অভ্যন্তরের ফাটলরেখা বরাবর ভূমিকম্পের সৃষ্টি হওয়ার কথা জেনেছি। কিন্তু লক্ষ্মীপুরসহ চলতি বছরের সাম্প্রতিক ভূমিকম্পগুলো আমাদের গভীর ভূত্বকের মধ্যে সৃষ্টি হচ্ছে। এ ধরনের গভীর ভূত্বক এলাকাগুলোতে শক্তিশালী না হলেও মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্প আমাদের জন্য বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে। ফলে সারা দেশে এ ধরনের মাঝারি মাত্রার ভূমিকম্পের নতুন উৎসস্থলগুলো চিহ্নিত করতে হবে। উৎসস্থল চিহ্নিত করতে পারলে সংশ্লিষ্ট এলাকার ভবনগুলোকে ভূমিকম্প সহনশীল করে তৈরি করা, স্বেচ্ছাসেবক এবং উদ্ধার যন্ত্রপাতি প্রস্তুত রাখা যাবে।’

Related articles

Recent articles

spot_img