13.4 C
New York

মন্ত্রী ও এমপিরা দিচ্ছেন প্রার্থী, তৃণমূলে বিভেদ

Published:

অনেক জায়গায় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যরা প্রকাশ্যে কোনো প্রার্থী ঘোষণা না করলেও ভেতরে–ভেতরে নিজেদের পছন্দের ব্যক্তিদের সমর্থন দিচ্ছেন। যেমন, ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় সাবেক সংসদ সদস্য দবিরুল ইসলামের ছোট ভাই সফিকুল ইসলাম এবার প্রার্থী হচ্ছেন। বর্তমান সংসদ সদস্য মাজহারুল ইসলাম তাঁর চাচা সফিকুল ইসলামকে সমর্থন দিচ্ছেন বলে আলোচনা আছে।

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিকের সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে পরিচিত সোহেল রানা। শিবলী সাদিক ঘোড়াঘাটে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য কাজী শুভ রহমান চৌধুরীকেও চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে সমর্থন দিয়েছেন বলে আলোচনা আছে।

চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার দামুড়হুদা ও জীবননগরে বর্তমান দুই চেয়ারম্যানকেই সমর্থন দিচ্ছেন বলে আলোচনা আছে। ঝালকাঠি সদর উপজেলায় ঝালকাঠি-২ আসনের সংসদ সদস্য আমির হোসেন আমু কাউকে প্রকাশ্যে সমর্থন দেননি। তবে বর্তমান চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান তাঁর সমর্থিত বলে পরিচিত।

ঢাকার কেরানীগঞ্জে বর্তমান চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহীন আহমেদ বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের সমর্থিত এবং কেরানীগঞ্জ মডেল থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামের সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে পরিচিত।

দলীয় সংসদ সদস্যরা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার করুক, তা চায় না আওয়ামী লীগ। গতকাল বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রংপুর বিভাগের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়ের শুরুতে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি এমপি, প্রভাব বিস্তার করব। আমার একজন থাকবে, তাঁকে জেতানোর জন্য গোটা প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হবে, এটা হতে পারে না। কেউ হস্তক্ষেপ করবে, এটা কোনোভাবে মেনে নেওয়া হবে না।’

{প্রতিবেদন তৈরিতে সহায়তা করেছেন প্রথম আলোর সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রতিনিধিরা}

Related articles

Recent articles

spot_img