8.3 C
New York

ভারতে নির্বাচনী বন্ডের নামে যেভাবে ‘রাজনৈতিক চাঁদাবাজি’ হচ্ছে

Published:

যেহেতু বিজেপি বন্ড চালু করেছে এবং এই বন্ডের সবচেয়ে বেশি সুবিধা ভোগ করেছে তারা, সেহেতু এই তথ্য প্রকাশের পর বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের ‘স্বাস্থ্য’ নিয়ে প্রশ্ন ওঠা স্বাভাবিক। আগামী এপ্রিলে শুরু হতে যাওয়া নির্বাচনে (যার মাধ্যমে মোদি তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বলে ব্যাপকভাবে ধারণা করা হচ্ছে) স্বচ্ছভাবে ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে কিনা তা নিয়েও সংশয়ের অবকাশ তৈরি হয়েছে।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে নির্বাচনী হাওয়া উত্তপ্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মোদি সরকার বিরোধী দলের বেশ কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনেছে। তাঁদের গ্রেপ্তার করেছে। এ ছাড়া সবচেয়ে বড় বিরোধী দল কংগ্রেস পার্টির প্রচুর অর্থ জমা আছে—এমন বেশ কয়েকটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করেছে।

সর্বশেষ নির্বাচনী বন্ডের তথ্য সামনে আসার পর এখন মোদির সমালোচকেরা বলছেন, এই তথ্য থেকেই বোঝা যাচ্ছে, ক্ষমতাসীন দল তহবিল সংগ্রহের প্রতিযোগিতায় নেমে অন্যায্য সুবিধা নিয়ে থাকে।

দিল্লি এবং পাঞ্জাব রাজ্যে ক্ষমতাসীন আম আদমি পার্টির নেতা ও দিল্লি সরকারের মন্ত্রী অতিশী রাজনৈতিক দলের প্রচারণা তহবিলে এই চাঁদাদানকে ব্যবসায়ীদের ‘টাকশালের রক্ষাকবচ’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। অতিশী বলেছেন, ‘আশির দশকে বলিউডের ছবিতে দেখা যেত, বোম্বের ডন ব্যবসায়ীদের কাছে রাস্তার মাস্তানদের পাঠিয়ে বলত, “টাকা দিন, কেউ আপনার গায়ে কোনো আঁচড় কাটতে পারবে না। ” ’ তিনি মনে করেন, মোদি সরকারও সেই ডনের ভূমিকায় চলে গেছে।

Related articles

Recent articles

spot_img