8.3 C
New York

‘ভারতবিরোধী চক্রের মাথার ছাতা বিএনপি’

Published:

সম্প্রতি ভারতীয় পণ্য বর্জনের যে রাজনীতি, তাতে জামায়াত নেতৃত্ব দিচ্ছে বলে মন্তব্য করছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু। তিনি বলেন, ভারতবিরোধী আন্দোলন এই চক্রের মাথায় ছাতা ধরেছে বিএনপি।

ভারতের পণ্য বয়কটের ইস্যুতে জাগো নিউজের কাছে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন সরকার জোটের অন্যতম এই শরিক নেতা।

হাসানুল হক ইনু প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘রাজনীতিতে ভারতীয় পণ্য বর্জনের যে সিদ্ধান্ত, তা নিয়ে আলোচনা হতেই পারে। আমরা পার্শ্ববর্তী দেশের পণ্য বয়কট করার যে রাজনীতি দেখতে পাচ্ছি, তা নিয়ে গভীরভাবে ভাবনার আছে বলে মনে করি। এ নিয়ে আমরা দলের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়েছি। আমরা অবস্থান পরিষ্কার করেছি। আমি মনে করি, বাংলাদেশ এবং বিশ্ব ব্যবস্থার যে অর্থনীতি, তাতে পণ্য বয়কটের রাজনীতি খুব কাজে আসে না।’

ভারতবিরোধী চক্রের মাথার ছাতা বিএনপি। বিএনপি-জামায়াত স্পষ্টতই পাকিস্তানপন্থা অনুসরণ করে আসছে। তারা কোনো যুক্তির ধার ধারে না। ক্ষমতায় গেলেও দেশবিরোধী নীতি ধারণ করে, ক্ষমতার বাইরে গেলেও পুনঃদখলের জন্য ভারতবিরোধী কর্মকাণ্ড ব্যবহার করতে থাকে। এই বিরোধিতার সঙ্গে আজকের রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই।

এই সময়ে ভারতবিরোধী রাজনীতি কেন স্পষ্ট হচ্ছে জানতে চাইলে বলেন, ‘বাংলাদেশে ভারতবিরোধী রাজনীতিটা আসলে কারা করছে এবং কখন থেকে এর প্রচলন হয়ে আসছে, সেটা দেখতে হবে। স্বাধীনতার পর থেকেই জামায়াত-বিএনপি ভারতবিরোধী অবস্থান নিয়ে রাজনীতি করে আসছে। পাকিস্তান আমলে যেভাবে ভারতবিরোধী অবস্থান নিয়ে একটি গোষ্ঠী পানি ঘোলা করার চেষ্টা করেছে, এখনো ঠিক তাই করছে।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভারবিরোধী যে অবস্থান প্রকাশ পাচ্ছে সে প্রসঙ্গে এই রাজনীতিক বলেন, ‘ফেসবুক বা মাঠে কারা আলোড়ন সৃষ্টি করছে, তা নিয়ে মিডিয়া মাথা ঘামাক। আমরা এসব নিয়ে ভাবছি না। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক কিছুই ঘটে। কিন্তু বাস্তবে কী রূপ নেয়, তা আমরা অতীতে দেখতে পেয়েছি। ভারতের পণ্য বয়কট নিয়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে ধরনের আলোচনা হচ্ছে, তার ফলাফল সময়ই বলে দেবে।’

আরও পড়ুন

সামাজিক মাধ্যমে যে কোনো ইস্যু চাউর করে সুবিধা নেওয়ার চেষ্টা করা হয়। এই মুহূর্তে আমি যদি সামাজিক মাধ্যম ধরে বিশ্লেষণ করি, তাহলে দেখতে পাবো, সন্দেহাতীতভাবে দুটি পক্ষ অবস্থান নিয়েছে। একটি পক্ষ সাধারণ মানুষ। আরেকটি পক্ষ বাংলাদেশবিরোধী। এরা সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী, জঙ্গিবাদ চক্র, যাদের নেতৃত্ব দিচ্ছে জামায়াত। আর এই চক্রান্তের পৃষ্ঠপোষক বিএনপি।’

ভারত নিজেও পণ্য বয়কট ইস্যু নিয়ে খুব মাথা ঘামাবে বলে মনে করি না। ভারতের যে বৃহৎ অর্থনীতি, তাতে বাংলাদেশে দেশটির পণ্য বয়কট আন্দোলন খুব হালে পানি পাবে না। ভারত নিজেদের জন্যই বড় একটি বাজার। অন্য কোনো দেশে তাদের পণ্য কেনা-বেচা কমলে তাতে খুব হেরফের হবে না।

তিনি বলেন, ভারতবিরোধী চক্রের মাথার ছাতা বিএনপি। বিএনপি-জামায়াত স্পষ্টতই পাকিস্তানপন্থা অনুসরণ করে আসছে। তারা কোনো যুক্তির ধার ধারে না। ক্ষমতায় গেলেও দেশবিরোধী নীতি ধারণ করে, ক্ষমতার বাইরে গেলেও পুনঃদখলের জন্য ভারতবিরোধী কর্মকাণ্ড ব্যবহার করতে থাকে। এই বিরোধিতার সঙ্গে আজকের রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই। আমেরিকা, চীন, ভারতের সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্বের সম্পর্কও আছে আবার কিছু বিষয়ে বিরোধিতাও আছে। এটি অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই।’

‘আমরা মনে করি, বন্ধুত্ব রক্ষার পাশাপাশি বিরোধ নিষ্পত্তির পন্থা কী, তা আমাদের রাজনৈতিকভাবেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। পাকিস্তান আমলের মতো ভারতবিরোধী কর্মকাণ্ড ব্যবহার করে আন্দোলনে দানা বাঁধানো যাবে না। এই ইস্যুতে গলাবাজি হবে। তাতে কোনা কাজ হবে না।’

ভারত নিজেও পণ্য বয়কট ইস্যু নিয়ে খুব মাথা ঘামাবে বলে মনে করি না। ভারতের যে বৃহৎ অর্থনীতি, তাতে বাংলাদেশে দেশটির পণ্য বয়কট আন্দোলন খুব হালে পানি পাবে না। ভারত নিজেদের জন্যই বড় একটি বাজার। অন্য কোনো দেশে তাদের পণ্য কেনা-বেচা কমলে তাতে খুব হেরফের হবে না। বলছিলেন, হাসানুল হক ইনু।

এএসএস/এএসএ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।

Related articles

Recent articles

spot_img