12 C
New York

বৃত্তি শিক্ষার্থীদের প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলায় সহযোগিতা করে

Published:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেছেন, যেকোন ধরনের বৃত্তির উদ্যোগ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলায় সহযোগিতা করবে ও তাদের মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তন ঘটাবে। এর ফলে শিক্ষার্থীরা সুযোগ্য ও দক্ষ নাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠে দেশ ও সমাজের কল্যাণে কাজ করার জন্য আরও অনুপ্রাণিত হবে।

বুধবার (২০ মার্চ) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের আরসি মজুমদার আর্টস অডিটোরিয়ামে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের বৃত্তি দেওয়া ও ট্রাস্ট ফান্ড গঠন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

উপাচার্য বলেন, বিভাগের বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়া ও ট্রাস্ট ফান্ড গঠনের লক্ষ্যে অনুদান দেওয়ার জন্য বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী ও দাতা এস এম ফারুকী হাসানকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা দেওয়া ও দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে তোলার ওপর সবাইকে গুরুত্ব দিতে হবে। এ জাতীয় উদ্যোগ ও সহযোগিতায় এগিয়ে আসার জন্য আমি অ্যালামনাইদের প্রতি আহ্বান জানাই।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০০ শিক্ষার্থীকে ‘আই এইচ সি-স্ল্যাব চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন বৃত্তি’ দেওয়া হয়। উপাচার্য শিক্ষার্থীদের হাতে বৃত্তির চেক তুলে দেন। এছাড়া শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তার জন্য ট্রাস্ট ফান্ড গঠনের লক্ষ্যে ‘আই এইচ সি-স্ল্যাব চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন’ এর পক্ষ থেকে বিভাগে এক কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হয়।

বিভাগীয় চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. আতাউর রহমান বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল বাছির এবং বৃত্তি ও অনুদানের দাতা আই, এইচ, সি-স্ল্যাব চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন ও প্রতীক গ্রুপের চেয়ারম্যান এসএম ফারুকী হাসান বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন।

এনএস/এমএএইচ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।

Related articles

Recent articles

spot_img