16.9 C
New York

বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি ছাত্রদলের

Published:

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, আপাতদৃষ্টে বুয়েটের শিক্ষার্থীদের ছাত্ররাজনীতির বিরুদ্ধে যে অবস্থান, তার একক দায়ভার ছাত্রলীগের। ছাত্রলীগের উপস্থিতিতে বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীদের জীবনের নিরাপত্তাহীনতা ও একাডেমিক পড়াশোনার ক্ষতির আশঙ্কাকে অত্যন্ত যৌক্তিক মনে করছে ছাত্রদল। এ বিষয়ে ছাত্রদল অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। সাংবিধানিক অধিকারের কথা বলে ছাত্রলীগ বুয়েটে ছাত্ররাজনীতি ফিরিয়ে আনার যে কথা বলেছে, তা একটি নিষ্ঠুর প্রতারণা। ছাত্ররাজনীতির নামে তারা ক্যাম্পাসে একক দখলদারি ও ছাত্র নির্যাতনের টর্চার সেল পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে চাইছে। ভবিষ্যতে বুয়েটের কোনো শিক্ষার্থী নির্যাতনের শিকার হলে তার দায়দায়িত্ব ছাত্রলীগ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বহন করতে হবে।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গেস্টরুমে ছাত্রদের মারধর করার অনেক ঘটনা বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে এসেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো হলে ছাত্রদলসহ অন্যান্য বিরোধী দলের সমর্থক কোনো শিক্ষার্থী অবস্থান করতে পারেন না। ছাত্রদল সমর্থন করার কারণে এখন পর্যন্ত পাঁচ শতাধিক ছাত্রকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হল থেকে নির্যাতন করে বের করে দেওয়া হয়েছে। নির্যাতন করার পর গুরুতর আহত অসংখ্য শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সহায়তায় পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। ছাত্রলীগের কারণে গত ১৫ বছরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দুজন নিরীহ শিক্ষার্থী খুন হয়েছেন।

ছাত্রদলের পক্ষ থেকে বলা হয়, ক্যাম্পাসে সহিংসতা ও নির্যাতনকে ছাত্ররাজনীতি বলা যায় না।

Related articles

Recent articles

spot_img