6.7 C
New York

বইমেলায় লোক বাড়ছে, বাড়ছে বিক্রিও

Published:

বইমেলায় সবাই বই কিনতেই আসেন, এমন নয়। অনেকেরই প্রধান উদ্দেশ্য একটু ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশে বিকেল-সন্ধ্যা সমমনাদের সঙ্গে ঘুরেফিরে আড্ডা দিয়ে সময় কাটানো। এর ফাঁকে স্টলের সামনে দিয়ে চলতে–ফিরতে মনে ধরলে একখানা বই কেনা। তবে বই কেনার জন্যই মেলায় যান, এমনও ক্রেতা আছেন। তৌফিকুল ইসলাম তেমন একজন গ্রন্থানুরাগী।

গতকাল রোববার মেলার চতুর্থ দিনের সন্ধ্যায় তৌফিকুল গভীর মনোযোগ দিয়ে বেশ স্বাস্থ্যবান একখানা বইয়ের পাতা মেলে চোখ বুলিয়ে যাচ্ছিলেন প্রথমার স্টলে। মোস্তফা কে মুজেরী, জিন্নাতুন নাদিরা ও নিয়াজ মুজেরীর লেখা এই বইয়ের নাম বাংলাদেশ: অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি ও কাঠামোগত রূপান্তর ১৯৭১-২০২১। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক। তবে এই চাকরি ছেড়ে দিচ্ছেন। ইতিমধ্যে বিসিএস উত্তীর্ণ হয়েছেন। কী কী বই কিনবেন তার তালিকা নিয়ে এসেছেন। প্রথমা থেকে এই বই ও সাজ্জাদ শরিফ সম্পাদিত একাত্তরের দিনপঞ্জি বইটি কিনবেন। আরও কয়েকটি কেনার পরিকল্পনা আছে—যেমন জিয়াউদ্দিন চৌধুরীর দুই জেনারেল হত্যা, বদরুল আলম খানের ইরান: ইসলামী বিপ্লবের পূর্বাপর, জাভেদ হুসেনের মির্জা গালিবের সঙ্গে দেখা ইত্যাদি।

তবে এই বইগুলো এখনো আসেনি। কোনটি এসেছে আর কোনটি আসবে, সব খবর তাঁর জানা। অন্য প্রকাশনীর বইও কিনবেন। ইতিমধ্যে বাতিঘর থেকে কিনেছেন জাপানি ঔপন্যাসিক নীতসুমে সোসেকির উপন্যাস আই অ্যাম এ ক্যাট। জানালেন রাজধানীর সেন্ট্রাল রোডে তাঁর বাসা। অফিস থেকে ফেরার পথে প্রতি সপ্তাহেই দু-এক দিন মেলায় আসবেন বই কিনতে।

Related articles

Recent articles

spot_img