23.1 C
New York

ফিলিপসের ক্যারিয়ার-সেরা বোলিংয়ের পর চ্যালেঞ্জের মুখে নিউজিল্যান্ড

Published:

গ্লেন ফিলিপস কী পারেন না! ছিলেন মূলত উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। কিন্তু দলে উইকেটকিপারের আধিক্যের কারণে ভূমিকা বদলেছে। ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি চতুর ফিল্ডিংয়ে রান বাঁচানোর কাজ তো করেনই; প্রয়োজনে ‘পার্টটাইমার’ তকমা তুলে রেখেও টানা বোলিং করতে পারেন।

হঠাৎ ‘আচরণ’ বদলানো ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভের পিচে নিউজিল্যান্ডের প্রয়োজনেই আজ তৃতীয় দিনে টানা ১৬ ওভার বল করেছেন ফিলিপস। তাঁর অফ স্পিনেই ব্যাটিংয়ে ধস নেমেছে অস্ট্রেলিয়ার। সফরকারীরা দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়েছে মাত্র ১৬৪ রানে। ফিলিপস নিয়েছেন ৫ উইকেট। এটি তাঁর ক্যারিয়ার–সেরা তো বটেই, গত দেড় যুগে ঘরের মাঠে কোনো কিউই স্পিনারের সেরা বোলিং।

এরপরও খুব একটা স্বস্তিতে নেই নিউজিল্যান্ড। স্বাগতিকদের ৩৬৯ রানের লক্ষ্য দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। টিম সাউদির দল আজ ৩ উইকেটে ১১১ রান তুলে দিনের খেলা শেষ করেছে। জিততে দরকার আরও ২৫৮ রান। লক্ষ্যটা ছুঁতে হলে ঘরের মাঠে টেস্টে সর্বোচ্চ রান তাড়ার পাশাপাশি নিজেদের ইতিহাসেও রেকর্ড লক্ষ্য তাড়া করতে হবে নিউজিল্যান্ডকে। নিউজিল্যান্ডে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে টেস্ট জয়ের রেকর্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ১৯৬৯ সালে অকল্যান্ড টেস্টে গ্যারি সোবার্স-ক্লাইভ লয়েডদের পরাক্রমশালী দলটি ৩৪৫ রানের লক্ষ্য টপকে গিয়েছিল। আর নিউজিল্যান্ড সর্বোচ্চ ৩২৪ রান তাড়া করে টেস্ট জিতেছে ১৯৯৪ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ক্রাইস্টচার্চে।

বিস্তারিত আসছে…।

Related articles

Recent articles

spot_img