11.5 C
New York

নাগরিক সমাবেশে বক্তারা: বনবিট কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামানকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে

Published:

মুন্সিগঞ্জের সাজ্জাদুজ্জামান আড়াই বছর আগে নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকার মুমতাহেনা সুমিকে বিয়ে করেন। এই দম্পতির ঘরে মাবির শাহ (সাদিকা) নামে ৯ মাস বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। সমাবেশে সাজ্জাদুজ্জামানের স্ত্রী এবং মেয়েও উপস্থিত ছিল। বাবা হত্যার কিছু না বুঝলেও প্রচণ্ড গরমে ৯ মাস বয়সী মেয়ে কাঁদছিল। সমাবেশের বিভিন্ন প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘বাবা হত্যার বিচার কি পাবে শিশু সাদিকা’, ‘সাদিকার ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করতে হবে’, ‘জাস্টিস ফর সজল’…। সমাবেশে সাজ্জাদুজ্জামানের বাবা ও মা উপস্থিত ছিলেন, তবে কথা বলেননি।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির সমাবেশে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বাপার সভাপতি অধ্যাপক নূর মোহাম্মদ তালুকদার।

সমাবেশ শুরুর আগে এবং শেষে সমাবেশ আয়োজনকারী বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা প্রধান বন সংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করেন। এ ছাড়া প্রধান বন সংরক্ষক সমাবেশেও বক্তব্য দেন। সমাবেশে বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা প্রধান বন সংরক্ষকের হাতে পাঁচ দফা দাবিনামা তুলে দেন।

সমাবেশ শেষে আলমগীর কবির প্রথম আলোকে বলেন, প্রধান বন সংরক্ষক মো. আমীর হোসাইন চৌধুরী সাজ্জাদুজ্জামানের হত্যার ঘটনায় অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছেন। কল্যাণ তহবিল থেকে টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করার পাশাপাশি ঈদের আগেই বন ভবনের কর্মীদের এক দিনের বেতন দিয়ে সাজ্জাদুজ্জামানের পরিবারের পাশে দাঁড়াবেন বলেও জানিয়েছেন।

Related articles

Recent articles

spot_img