14.8 C
New York

দেশে গণতন্ত্রের চর্চা নেই: জিএম কাদের

Published:

জাতীয় পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, বর্তমান দেশে গণতন্ত্রের চর্চা নেই।

তিনি বলেন, সরকারকে জবাবদিহি করার কোনো কার্যকর ব্যবস্থা নেই। দেখা যাচ্ছে সার্বিকভাবে দেশে প্রায় সব পর্যায়ে জবাবদিহির অভাব। স্বজনপ্রীতি আর দলীয়করণের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের মাঝে বৈষম্য সৃষ্টি করা হয়েছে।

সোমবার (২৫ মার্চ) বিকেলে এজিবি কলোনি কমিউনিটি সেন্টারে জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের পিছিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে জিএম কাদের বলেন, প্রতিবেশী সব দেশ থেকেই পিছিয়ে আছি আমরা। স্বাভাবিক কারণে আফগানিস্তান ১৪৩তম হয়ে সবচেয়ে অসুখী দেশ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। যেভাবে অধঃপতন হচ্ছে এরকম চলতে থাকলে কিছুদিনের মধ্যেই আমরা সবচেয়ে অসুখী দেশ হিসেবে গণ্য হতে পারি, আশঙ্কা আছে।

সুশাসনের অভাবে সুখের অভাব হয় জানিয়ে তিনি বলেন, সুশাসনের অর্থ আইনের শাসন এককথায় আইনের চোখে সবাই সমান। দ্বিতীয় বিষয়টি সামাজিক ন্যায়বিচারভিত্তিক সমাজ বা বৈষম্যহীন সাম্যের ভিত্তিতে চলা দেশ। এ দুটি সম্ভব হয় গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার, গণতন্ত্রের বা জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে। কেননা এ পদ্ধতিতেই শুধু সব স্তরের সব ধরনের জনগণ জবাবদিহির আওতায় থাকে।

জিএম কাদের বলেন, সুশাসন নেই কোথাও। এ কারণেই দেশের মানুষ তার প্রাপ্য অধিকার বঞ্চিত হচ্ছে। তৃণমূল থেকে সর্বোচ্চ আসন পর্যন্ত কোথাও জবাবদিহি নেই। দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না, তাই বেড়েই চলছে অনিয়ম আর দুর্নীতি।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক জহিরুল আলম রুবেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য হাজি সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, জহিরুল ইসলাম জহির, মোস্তফা আল মাহমুদ ও শেরিফা কাদের।

এসএম/বিএ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।

Related articles

Recent articles

spot_img