12.4 C
New York

জামায়াত মাঠে, অস্বস্তিতে আ.লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা

Published:

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী পারভেজ কবীর প্রথম আলোর কাছে দাবি করে বলেন, ‘এবার আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার সুযোগ নেই। তবে স্থানীয়ভাবে আওয়ামী লীগের জেলা ও উপজেলা শাখা থেকে আমাকে সমর্থন দেওয়া হয়েছে। জামায়াত থেকে একজন নির্বাচনের জন্য মাঠে নেমেছেন। আর আওয়ামী লীগ থেকে চারজন। জামায়াত নেতার সঙ্গে মাঠে তো একটা লড়াই হবেই। তবে মাঠে নামলেই বোঝা যাবে কার কী অবস্থান।’

এ বিষয়ে জামায়ত নেতা ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী এনামুল হক প্রথম আলোকে বলেন, ‘দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্তে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার জন্য আমাকে বলা হয়েছে। গত বুধবার থেকে সাংগঠনিকভাবে নির্বাচনী মাঠে কাজ শুরু করেছি। নির্বাচন সামনে রেখে এলাকার সাধারণ ভোটারদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ থাকলে আমি ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হব ইনশা আল্লাহ।’

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিরামপুর উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৪৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭৪ হাজার ৫৪৮ আর নারী ভোটার ৭৪ হাজার ৭৯৫ জন। হিজড়া ভোটার রয়েছেন ৪ জন। ৮ মে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৫ এপ্রিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ। ২২ এপ্রিল প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। ২৩ এপ্রিল প্রতীক বরাদ্দ করা হবে।

এ বিষয়ে দিনাজপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘এই নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

Related articles

Recent articles

spot_img