17.8 C
New York

চবির সাবেক শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, প্ররোচনাকারীদের শাস্তি দাবি

Published:

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩তম ব্যাচের সদস্য তাহমিনা শবনমের কন্যা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী ফইরুজ সাদাফ অবন্তিকার আত্মহননে প্ররোচনাকারীদের শাস্তি ও শিক্ষাঙ্গনে যৌন হয়রানি বন্ধের দাবিতে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন চবির প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে চবির সাবেক ছাত্র পরিষদ ২৩তম ব্যাচের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। সংগঠনের আহ্বায়ক সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম কমুর সভাপতিত্বে যুগ্ম আহ্বায়ক আসলাম মুরশেদের সঞ্চালনায় সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য দেন পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল।

আরও বক্তব্য দেন পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ও মুখপাত্র, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের সভাপতি মাহবুবুল হক সুমন, পরিষদের সদস্য সচিব প্রফেসর সাহেদ বিন সাদিক, ড. শেখ বখতিয়ার উদ্দীন, নাজিম উদ্দিন শ্যামল, সৈয়দ কামরুল হাবীব, নাসির উদ্দিন তোতা, চুয়েটের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবু কাউসার, প্রফেসর রুহি সাফদার, অধ্যাপক বিচিত্রা সেন, অধ্যাপক পিংকু দাশ, নাহিদ সুলতানা, অধ্যাপক মুরশেদা ইসলাম কলি, হুমায়ুন কবির মিটু, ওসমান গণী মজুমদার, আক্তার হোসেন, আবু সুফিয়ান, রেজাউল আকবর, মোহাম্মদ আলী, আসিফুল হক, সাইফুল্লাহ মনসুর, শাহ সেলিম, আমজাদ হোসেন, মহসিন চৌধুরী ও মাঈনুদ্দীন মজুমদার হিমু ও চৌধুরী কে এম রিয়াদ।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন, মহিলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সিতারা শামীম ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সেন্ট্রাল অ্যালামনাইয়ের সহ-সভাপতি কামরুল হাসান হারুন।

এ সময় বক্তারা বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছাত্র ছাত্রীদের নিরাপদ স্থান, শিক্ষকরা দ্বিতীয় অভিভাবক। কিন্তু জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী ফাইরুজ সাদাফ অবন্তিকার আত্মহনন প্রমাণ দিচ্ছে আজ শিক্ষাঙ্গন ও শিক্ষক শিক্ষার্থীদের জন্য নিরাপদ নয়। এটি জাতির জন্য দুর্ভাগ্য।

বক্তারা বলেন, অবন্তিকার মা শবনম আমাদের চবিয়ান ও ২৩তম ব্যাচের বন্ধু। আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে বুলিংয়ের শিকার হয়ে অবন্তিকাকে যারা আত্মহত্যা করতে বাধ্য করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। শিক্ষাঙ্গনকে যৌন হয়রানিমুক্ত করারও দাবি জানান বক্তারা।

ইকবাল হোসেন/এমআরএম/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।

Related articles

Recent articles

spot_img