15.4 C
New York

চট্টগ্রামে শতবর্ষী গাছ কেটে এক্সপ্রেসওয়ের র‍্যাম্প নামাতে চায় সিডিএ

Published:

টাইগারপাস থেকে পলোগ্রাউন্ড পর্যন্ত র‍্যাম্প নির্মাণে ১৪ শতক জায়গা চেয়ে রেলওয়েকে ২৫ মার্চ চিঠি দিয়েছে সিডিএ। এ জায়গায় গাছগুলো রয়েছে। সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের মূল অংশের নির্মাণকাজ শেষ পর্যায়ে। আর র‍্যাম্প নির্মাণের জন্য ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছে। পলোগ্রাউন্ড রোড–সংলগ্ন ১৪ শতক জায়গা ব্যবহারের অনুমতি প্রয়োজন।

গাছ কেটে র‍্যাম্প নির্মাণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিডিএর প্রকল্প পরিচালক মো. মাহফুজুর রহমান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, টাইগারপাসের এই অংশ ছাড়া র‍্যাম্প করার আর কোনো বিকল্প জায়গা নেই। এখানে র‍্যাম্প করতে গেলে গাছ কাটতে হবে। তবে বড় গাছগুলো যাতে কাটা না পড়ে, সে জন্য চেষ্টা করেছেন। তারপরও একটি-দুটি হয়তো কাটা পড়বে। গাছ কাটার বিষয়ে বন বিভাগের অনুমতি নেওয়া হয়েছে।

নীতিমালা অনুযায়ী জায়গা ব্যবহারের অনুমতির বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের প্রধান ভূসম্পত্তি কর্মকর্তা সুজন চৌধুরী। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘সিডিএ আমাদের জায়গায়টি পরিদর্শনে নিয়ে গিয়েছিল। তখন পরিবেশের কথা চিন্তা করে আমি ব্যক্তিগতভাবে র‍্যাম্পটি এখানে না নামিয়ে অন্য কোথাও করার সুযোগ রয়েছে কি না, তা বিবেচনা করার অনুরোধ করি।। তখন তাঁরা জানান, এ জায়গাকে কেন্দ্র করে নকশা করেছেন। অন্য কোনো জায়গায় নামানোর সুযোগ নেই। তারপরও নকশা সংশোধন করার অনুরোধ জানিয়েছিলাম।’

এ স্থানে র‍্যাম্পের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার মজুমদার প্রথম আলোকে বলেন, এই দ্বিতল সড়ক শহরের জন্য অনন্য। এটির নান্দনিক ও ঐতিহাসিক গুরুত্ব রয়েছে। এই সড়কের যে গাছগুলো রয়েছে, তা অনেক পুরোনো। এই বয়সী গাছ এখন চট্টগ্রাম তো দূরে থাক, বাংলাদেশেও তেমন নেই। এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে জিইসি মোড় ও আগ্রাবাদ থেকে ওঠার সুযোগ রয়েছে। তাই এই দুটি স্থানের মধ্যবর্তী জায়গা টাইগারপাসে র‍্যাম্প নির্মাণের দরকার ছিল না। হয়তো বেশি টোল পাওয়ার আশায় এই র‍্যাম্প নির্মাণ করছে। এর মাধ্যমে নগরের মানুষের স্বপ্নের ও স্বস্তির জায়গাগুলো যেভাবে ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে, তা অপরাধ।

Related articles

Recent articles

spot_img