5.6 C
New York

গাজা যুদ্ধ: ইউরোপের ঘুম কি ভাঙল অবশেষে?

Published:

অন্য কথায়, এসব অগ্রগতি ইসরায়েলের মুখে একটা থাপ্পড়ের মতো এবং ফিলিস্তিনিদের মুক্তি স্পৃহার প্রতি সমর্থন।  

ক্যামেরন হোয়াইট হাউসের সঙ্গে আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কি না, এখনো বোঝা যাচ্ছে না। যদি আলোচনা করে থাকে তাহলেই মঙ্গল।

সবশেষ গত সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ২৭টি সদস্যরাষ্ট্রের মধ্যে হাঙ্গেরি ছাড়া ২৬টি গাজায় যুদ্ধবিরতির পক্ষে অবস্থান নেয় এবং রাফায় যেন ইসরায়েল অভিযান না চালায়, সে ব্যাপারে জোর দাবি জানায়। সহিংস ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীদের নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার বিপক্ষেও দাঁড়িয়েছে হাঙ্গেরি।

সুতরাং বোঝা যাচ্ছে কিছু একটা পরিবর্তন হচ্ছে। তবে এই জায়গায় পৌঁছাতে ৩০ হাজার ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিককে প্রাণ দিতে হচ্ছে। সেই বিবেচনায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের এই অবস্থান লজ্জাজনক। তবু ইইউ ঠিক পথে এগোবে এটাই প্রত্যাশিত।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র এখনো জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জন্য তাদের সিদ্ধান্তের খসড়া তৈরি করছে। এই খসড়ায় মার্কিন কূটনীতিতে প্রথমবারের মতো ‘যুদ্ধবিরতি’ শব্দটি যুক্ত হতে যাচ্ছে। এর সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়ও যুক্ত হচ্ছে, যেমন রাফায় অভিযান চালানো যাবে না।

  • মার্কো কার্নেলস ইতালীয় কূটনীতিক। সোমালিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও জাতিসংঘে দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন ইরাকের রাষ্ট্রদূত। সিরিয়ার শান্তি আলোচনায় ইতালির পক্ষে বিশেষ দূত হিসেবে সমন্বয়কের ভূমিকায় ছিলেন।

নিবন্ধটি মিডলইস্ট আইয়ে প্রকাশিত। ইংরেজি থেকে অনুবাদ করেছেন শেখ সাবিহা আলম

Related articles

Recent articles

spot_img