19.1 C
New York

কমতে শুরু করেছে তরুণ জনগোষ্ঠী

Published:

জনমিতির সুবিধা

বিবিএসের জরিপে দেখা গেছে, দেশের ৬৫ শতাংশের বেশি মানুষ এখনো কর্মক্ষম। ফলে জনমিতির সুবিধা কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে অনুকূল সময় বিরাজ করছে। তবে বিশ্লেষকেরা মনে করেন, জনসংখ্যার বেশির ভাগ মানুষ কর্মক্ষম হলেই যে একটি দেশ জনমিতির লভ্যাংশ নিতে পারবে, তা নয়। এ সুবিধা নিতে হলে কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীকে যথাযথভাবে কাজে লাগাতে হবে। গত শতকের ষাট ও নব্বইয়ের দশকে হংকং, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া ও তাইওয়ান ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড বা জনমিতির সুবিধা নিয়ে বিস্ময়কর অর্থনৈতিক উন্নয়ন করতে পেরেছে।

এ বিষয়ে গবেষণাপ্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) সম্মাননীয় ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, জনমিতির সুবিধা যত দিন পাওয়ার কথা ছিল, তার মধ্যে অনেকটা সময় ইতিমধ্যে পেরিয়ে গেছে। বয়স্ক জনগোষ্ঠী আগামী ১৫-২০ বছরে আরও বাড়বে। এখন যে তরুণ জনগোষ্ঠী আছে, তাদের কাজে লাগাতে মানসম্মত শিক্ষা, উন্নত প্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করতে হবে। বাংলাদেশ এলডিসি উত্তরণ ঘটাতে যাচ্ছে; এরপর আমরা বাজারসুবিধা হারাব এবং প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ হব, সেই পরিস্থিতি মাথায় রেখে আমাদের তরুণ জনগোষ্ঠীর দক্ষতা বৃদ্ধির বিকল্প নেই।

মোস্তাফিজুর রহমান আরও বলেন, শিক্ষা ক্ষেত্রে জিডিপির ২ শতাংশ বরাদ্দ দিয়ে এই অভীষ্ট অর্জন করা সম্ভব নয়। কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর এক–তৃতীয়াংশ যদি শিক্ষা প্রশিক্ষণ বা কর্মসংস্থানে না থাকে, তাহলে আমরা কীভাবে জনমিতির এই সুবিধা কাজে লাগাব। শিক্ষা খাতে বরাদ্দ অন্তত শতভাগ বাড়াতে হবে।

Related articles

Recent articles

spot_img