10.6 C
New York

‘এসব বড় ভূমিকম্পের পূর্বলক্ষণ’ | প্রথম আলো

Published:

প্রথম আলো:

ভূমিকম্পের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে কী ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন বলে আপনি মনে করেন?

সৈয়দ হুমায়ুন আখতার: আমাদের এখনো সময় রয়েছে পরিকল্পনা নেওয়ার। সরকারকে স্বল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিতে হবে। তবে সরকার যে পরিকল্পনা নিচ্ছে, সেটা দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা। সেটাতেও কিছুটা ভুল আছে। এ ক্ষেত্রে ভূমিকম্পের পরবর্তী উদ্ধারকাজের জন্য পরিকল্পনা করা হচ্ছে। কিন্তু ক্ষতি যেন না হয়, তার জন্য কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না।

ভূমিকম্প হলে কোথায় ক্ষয়ক্ষতি বেশি হতে পারে, কোথায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উদ্ধারকারী দল ও চিকিৎসক দল দ্রুত পাঠাতে হবে, কোন জায়গাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে, সেগুলো নিয়ে সরকারের কোনো পরিকল্পনা দেখছি না। আমি মনে করি, আমরা যেহেতু অনেকেই স্মার্টফোন ব্যবহার করি, সে ক্ষেত্রে স্মার্টফোন ব্যবহার করে জনগণকে সচেতন করা যেতে পারে।

কেননা, আমরা যে অবকাঠামোর মধ্যে বসবাস করছি, অপরিকল্পিত ও অনিয়ন্ত্রিত যে নগরায়ণ করা হয়েছে, এর মধ্যে অনেক ভবন আছে দুর্বল প্রকৃতির, যেগুলো ভূমিকম্পে ভেঙে পড়তে পারে। আবার কিছু ভবন আছে নকশাজনিত ত্রুটির কারণে ভূমিকম্প হলে ভেঙে বা ধসে পড়তে পারে। এখন যে অংশগুলো নিরাপদ, সেটা যদি আমরা জনগণকে আগে বলে দিতে পারি যে এ অংশ নিরাপদ, তাহলে তারা ভূমিকম্পের সময়ে সেখানে সরে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে আমরা স্মার্টফোনের সহায়তা নিতে পারি।

টেক্সট পাঠিয়ে আমরা জনগণকে সচেতন করতে পারি যে ভূমিকম্পের আগে কী করা উচিত, ভূমিকম্পের সময় তারা কীভাবে নিজেদের নিরাপদ রাখবে এবং ভূমিকম্পের পরে তাদের করণীয় কী হবে।

Related articles

Recent articles

spot_img