11.2 C
New York

এলিটা কিংসলি এবার ব্রাদার্সে | প্রথম আলো

Published:

অন্যদিকে জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াকে মধ্যবর্তী দলবদলে দলে নিয়েছে আবাহনী লিমিটেড। আর্জেন্টিনার তৃতীয় বিভাগের দল ছেড়ে আবাহনীতে যোগ দিয়েছেন জামাল, এমন ঘোষণা আবাহনীর পক্ষ থেকে আগেই দেওয়া হয়েছে।

এরপরই আর্জেন্টিনার ক্লাব থেকে চুক্তির কোনো টাকা পাননি বলে অভিযোগ করে ফিফায় নালিশ ঠুকেছেন বলে জামাল নিজেই সংবাদমাধ্যমকে জানান। ফলে আর্জেন্টিনার ক্লাব থেকে আন্তর্জাতিক ছাড়পত্র পাওয়া নিয়ে কিছুটা অনিশ্চয়তা ছিল। তবে এ নিয়ে কোনো সমস্যা হয়নি। জামাল ছাড়পত্র পেয়েছেন এবং আবাহনীতে যোগ দেওয়ার আনুষ্ঠানিকতাও সম্পন্ন করেছেন।

এলিটা কিংসলির ব্রাদার্সে যোগ দেওয়া একটা চমকই। কারণ, দেশীয় ক্লাব কর্মকর্তাদের কাছে এখন একরকম ব্রাত্যই তিনি। ফিটনেসে সমস্যা আছে। বয়স হয়ে গেছে ৩৪। তারপরও তাঁকে দলে নেওয়া প্রসঙ্গে ব্রাদার্সের ম্যানেজার আমের খান আজ প্রথম আলোকে বলেছেন, ‘এলিটার ফিটনেস নিয়ে কোনো সমস্যা আছে মনে করি না। ওর অভিজ্ঞতা অনেক। মৌসুমের শুরুতে যখন সে কোনো দলে ছিল না, তখন তাকে আমরা বলেছিলাম দ্বিতীয় পর্বে আমরা নিতে পারি। সে অনুযায়ী নিয়েছি। এমন একজন অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ড আমাদের দরকার ছিল। আশা করি তার কাছ থেকে ভালো কিছু পাব।’ যোগাযোগ করা হলে ব্যস্ততার কথা বলে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাননি এলিটা।

২০১১ সালে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের জার্সিতে বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলে শুরু এলিটা কিংসলির। ২০২১ সালে বাংলাদেশি খেলোয়াড় হিসেবে নাম লেখান বসুন্ধরা কিংসে। কিংসের জার্সিতে দুই মৌসুমে ২১ ম্যাচে গোল করেন ৯টি।

কিংস থেকে আবাহনীতে এসে সর্বশেষ প্রিমিয়ার লিগে স্থানীয়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৮ গোল করেন। প্রিমিয়ার লিগ ও ফেডারেশন কাপ মিলিয়ে আবাহনীর জার্সিতে ১৬ ম্যাচ খেলে গোল করেছিলেন ৯টি। কিন্তু এ মৌসুমে তাঁর সঙ্গে চুক্তি বাড়ায়নি আবাহনী। অন্য কোনো দলও তাঁকে নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেনি।

অগত্যা নিজের শিকড় নাইজেরিয়ায় বেড়াতে চলে গিয়েছিলেন এলিটা। সেখান থেকে ফিরে চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার লিগে মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া চক্রের হয়ে চার ম্যাচ খেলে কোনো গোল পাননি।

তিন বছর আগে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পেয়েছিলেন। গত বছর মার্চে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে সেশেলসের বিপক্ষে বাংলাদেশের জার্সিতে অভিষেকও হয়। তবে দুই ম্যাচে মাত্র ৬৮ মিনিট মাঠে থেকে কোনো গোল পাননি। সর্বশেষ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রাথমিক দলে থাকলেও চূড়ান্ত দলে তাঁকে নেননি কোচ হাভিয়ের কাবরেরা। এখন ব্রাদার্সের একাদশে তাঁর জায়গা হয় কি না, সেটাই দেখার।

Related articles

Recent articles

spot_img