9.6 C
New York

এক প্যানেলের প্রার্থী আরেক প্যানেলে, নতুন জায়গায় ভোট

Published:

আবাসন ব্যবসায়ীদের সংগঠন রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) নির্বাচনে এবার প্রার্থীরা চারটি প্যানেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। গত সপ্তাহে নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা শুরু হলে দেখা যায়, এক প্যানেলের প্রার্থী অন্য প্যানেলে ভিড়েছেন। অন্যদিকে এক সপ্তাহ আগে এসে তৃতীয়বারের মতো ভোট গ্রহণের স্থান পরিবর্তন হচ্ছে।

প্রায় ১০ বছর পর এই বাণিজ্য সংগঠনের নেতৃত্ব নির্বাচনে ভোট হচ্ছে। ২৭ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণ হবে। ফলে শেষ মুহূর্তের প্রচার-প্রচারণা জমে উঠেছে। প্রার্থীরা ভোট চাইতে এখন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন।

রিহ্যাবের নির্বাচন কেন্দ্র করে চারটি প্যানেলে হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে সংগঠনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জাপান গার্ডেন সিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ওয়াহিদুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন আবাসন ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ, সেঞ্চুরি রিয়্যালটির চেয়ারম্যান এম জি আর নাসির মজুমদারের নেতৃত্বে ডেভেলপারস ফোরাম, রিহ্যাবের সাবেক সহসভাপতি নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে নবজাগরণ প্যানেল এবং সাবেক জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ও হামিদ রিয়েল এস্টেট কনস্ট্রাকশনের এমডি ইন্তেখাবুল হামিদের নেতৃত্বে জয় ধারা নামে একটি প্যানেল হয়েছে। ইন্তেখাবুল হামিদ বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের ভাই।

চার প্যানেলের বাইরে যাঁরা প্রার্থী হয়েছেন—মাসুদ মনোয়ার, প্রদীপ কর্মকার, মো. এমদাদুল হোসেন, এ এস এম আবদুল গাফফার মিয়াজী প্রমুখ।

চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা অনুযায়ী, ঢাকার ২৯ পরিচালক পদের বিপরীতে প্রার্থী আছেন ৮৬ জন। আর চট্টগ্রামের তিনটি পরিচালক পদের বিপরীতে রয়েছেন সাতজন। তবে জয় ধারা ও আবাসন ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ—এই দুটি প্যানেল সব কটি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। ডেভেলপারস ফোরাম ও নবজাগরণ প্যানেল যথাক্রমে ১০ ও ১৯ জন করে প্রার্থী দিয়েছে।

Related articles

Recent articles

spot_img