19.3 C
New York

ঈদের আগে জমেছে নতুন নোটের ব্যবসা, দাম কেমন পড়ছে

Published:

১০ টাকার একটি বান্ডিলের (১০০টি নোট) মূল্যমান ১ হাজার টাকা। তবে মতিঝিল ও গুলিস্তান ঘুরে দেখা গেছে, নতুন নোটের এমন একটি বান্ডিল সেখানে ১ হাজার ১৫০ টাকা থেকে এক হাজার ২০০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। অর্থাৎ প্রতি বান্ডিলে ক্রেতাদের বাড়তি ১৫০ থেকে ২০০ টাকা গুনতে হচ্ছে। ২০ টাকার বান্ডিলের দরও একই রকম।

এভাবে নতুন ২ টাকার বান্ডিলে ১২০ টাকা, ৫ টাকার বান্ডিলে ১২০-১৫০ টাকা, ৫০ ও ১০০ টাকার বান্ডিলে ১৫০-২০০ টাকা এবং ২০০ টাকার বান্ডিলে ১০০ টাকা করে বাড়তি দিতে হচ্ছে ক্রেতাদের। ঈদের সময় যত ঘনিয়ে আসে, নতুন নোটের দাম তত বাড়তে থাকে বলে জানান বিক্রেতারা। তবে একটু দরাদরি করে নিলে দামে কিছুটা ছাড় পাওয়ার সুযোগ থাকে।

বেশ কয়েকজন ক্রেতা ও বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বছরের তুলনায়ও নতুন নোটের দাম বান্ডিলপ্রতি ৩০-১০০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। পাঁচ বছর আগে এই দাম আরও কম ছিল। তখন ২, ৫, ১০ ও ২০ টাকার নোটে ৮০-১০০ টাকা বেশি লাগত। আর ৫০ ও ১০০ টাকার নোটে বাড়তি লাগত ১২০-১৫০ টাকা।

রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশে নতুন টাকা কিনতে আসেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী মো. জাকির হোসেন। তিনি জানান, প্রতিবছর দুই ঈদের সময় নতুন নোট সংগ্রহ করেন তিনি। গত বছর ১০০ টাকার নোটের একটা বান্ডিল কিনেছিলেন অতিরিক্ত দেড় শ টাকা দিয়ে; এ বছর সেটির জন্য বাড়তি ২০০ টাকা দিতে হয়েছে।
রাজধানীর সদরঘাট এলাকায় ঝুট কাপড়ের ব্যবসা করেন মুন্সিগঞ্জের বিক্রমপুরের বাসিন্দা মনির হোসেন। রোববার তিনি রাজধানীর গুলিস্তানে নতুন টাকা কিনতে যান। প্রতিবছরই ঈদে বাড়ি ফেরার সময় নতুন নোট কেনেন তিনি। জানতে চাইলে মনির হোসেন বলেন, গত বছরের তুলনায় প্রতি বান্ডিলে ৩০-৫০ টাকা বেশি দাম রাখা হচ্ছে।

Related articles

Recent articles

spot_img