12.4 C
New York

আর কোনো আবেদন গ্রহণ করা হবে না

Published:

জামুকার ৮৮তম সভার কার্যবিবরণী তথ্য অনুযায়ী, ক তালিকায় এখনো ৬ হাজার ৩৩৩টি আবেদন এবং ‘খ’ ও ‘গ’ তালিকার ২১ হাজার ৪৮৩টি আবেদন রয়েছে। এসব আবেদন ও আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে। ফলে বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতির জন্য এসব আবেদন আর বিবেচনা করা হবে না।

জামুকা সূত্র জানায়, স্বাধীনতার পর থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত সাতবার মুক্তিযোদ্ধা তালিকা সংযোজন-বিয়োজন হয়েছে। আর বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তালিকায় অন্তুর্ভুক্তির ক্ষেত্রে বয়স, সংজ্ঞা ও মানদণ্ড পাল্টেছে ১১ বার। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত ও পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশের বিষয়ে সরকার বিভিন্ন সময় প্রতিশ্রুতি দিলেও তালিকা প্রকাশ করতে পারেনি।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক গত রোববার প্রথম আলোকে বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা তৈরির কাজ প্রায় শেষ। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য আমরা আর কোনো নতুন আবেদন বা আপিল গ্রহণ করব না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। নতুন করে কাউকে তালিকায় যুক্ত করা হবে না।’

তবে বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আর কোনো আবেদন গ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত ঠিক হয়নি বলে মনে করেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, এই প্রক্রিয়া চলমান থাকা দরকার। প্রবাসে অনেক বীর মুক্তিযোদ্ধা আছেন, যাঁরা আমলাতান্ত্রিক জটিলতার মধ্য দিয়ে আবেদন করতে পারেননি। আর আবেদন করার প্রক্রিয়াটি অনেক জটিল।

Related articles

Recent articles

spot_img