20.5 C
New York

আইপিএল ২০২৪: নিলামে মিলিয়নিয়ার, মাঠে ‘ফ্লপ’ যাঁরা

Published:

২০২১ আইপিএলে ৩২ উইকেট নিয়েছিলেন হর্শাল প্যাটেল, যা ওই আসরে তো বটেই; সব আসর মিলিয়ে ডোয়াইন ব্রাভোর সঙ্গে যৌথ সর্বোচ্চ। সেই মৌসুমে দারুণ বোলিংয়ের পুরস্কারস্বরূপ ভারতের জাতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন হর্শাল, ছিলেন ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্কোয়াডেও। আইপিএলের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারির প্রতীক ‘পার্পল ক্যাপ’-এর সঙ্গে মিল রেখে কেউ কেউ তাঁকে ‘পার্পল প্যাটেল’ নামেও ডাকতে শুরু করেন। তবে ২০২২ ও ২০২৩ আইপিএলে খুব একটা ভালো করতে না পারায় (২৮ ম্যাচে ৮.৬৬ ইকোনমি রেটে ৩৩ উইকেট) তাঁকে ছেড়ে দেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। ৩৩ বছর বয়সী পেসার এবারের নিলামে অবশ্য বাজিমাত করেন। তাঁকে ১১ কোটি ৭৫ লাখ রুপিতে কিনে নেয় পাঞ্জাব কিংস। তিনি হয়ে যান এবারের নিলামের চতুর্থ সর্বোচ্চ দামি এবং ভারতীয়দের মধ্যে সবচেয়ে দামি ক্রিকেটার। কিন্তু চড়া দামের মান রাখতে পারেননি হর্শাল। এখন পর্যন্ত ৫ ম্যাচে উইকেট পেয়েছেন মাত্র ৬টি, রান বিলিয়েছেন দেদার। ইকোনমি রেট ১০.৫৫; সেটাও কিছুটা ভদ্রস্থ দেখাচ্ছে সর্বশেষ ম্যাচে ৩০ রান দেওয়ায়। প্রথম ৪ ম্যাচের প্রতিটিতেই তো তিনি ন্যূনতম ৪৪ রান করে দিয়েছিলেন।

এ ছাড়া পরিচিতি খেলোয়াড়দের মধ্যে চড়া দামে বিক্রি হওয়া হার্দিক পান্ডিয়া, মোহাম্মদ সিরাজ, শিখর ধাওয়ান, মিচেল মার্শরা এখন পর্যন্ত নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। ১০ কোটি রুপিতে গুজরাট টাইটানসে বিক্রি হওয়া অস্ট্রেলিয়ান পেসার স্পেনসার জনসনের পারফরম্যান্সও আশাব্যঞ্জক নয় (৪ ম্যাচে ৯.২১ ইকোনমি রেটে ৩ উইকেট)। সবচেয়ে দামি ১০ খেলোয়াড়ের তালিকায় থাকা রাইলি রুশো (৮ কোটি রুপি) তো এখনো খেলারই সুযোগ পাননি। ৭ কোটি ৪০ লাখ রুপিতে বিক্রি হওয়া রোভম্যান পাওয়েল গত রাতে প্রথমবার খেলার সুযোগ পেয়েছেন।

Related articles

Recent articles

spot_img