11.5 C
New York

অন্যের সঙ্গে নিজেকে তুলনা করা যেভাবে বন্ধ করবেন

Published:

বাজে আলোচনা পরিহার করুন

পরনিন্দা-পরচর্চা আনন্দদায়ক কিন্তু ক্ষতিকর। ফাস্ট ফুডের মতো। খেতে ভালো, কিন্তু অতি অস্বাস্থ্যকর। এই অভ্যাস নীরবে আপনার হীনম্মন্যতাবোধকে উসকে দিচ্ছে, টের পাচ্ছেন? অন্যকে বিচার করা বন্ধ করুন। এটি করে অবচেতনে নিজেকেই নিজে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাচ্ছেন। পরিচিত বলয়ে, বন্ধুবান্ধবের আড্ডায় কিংবা নিজের মুখোমুখি দাঁড়িয়েও কারও কাজকর্ম, চরিত্রবৈশিষ্ট্য ব্যবচ্ছেদ করবেন না।

নিজেকে ভালোবাসুন

হ্যাঁ, নিজের প্রতি নিজের ভালোবাসা অনেক কিছুর মীমাংসা করে দিতে পারে। আত্মসমালোচনা থাকুক, তবে তা অতটা নির্মম না হোক। বরং আত্মসহানুভূতিশীল হোন। একটা শর্তহীন ভালোবাসা বজায় রাখুন নিজের প্রতি। যখন আপনিই আপনাকে ভালো না বাসতে পারছেন, শ্রদ্ধা করতে না পারছেন, তখনই কিন্তু নিজের অজান্তে নিজেকে তুলনা করছেন অন্যের সঙ্গে।

কৃতজ্ঞতাবোধের চর্চা করুন

কৃতজ্ঞতাবোধ রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায়। নেতিবাচক বৈশিষ্ট্য হ্রাস করে ইতিবাচক অনুভূতিগুলোকে অধিক কর্মক্ষম করে তোলে। কৃতজ্ঞ মানুষের মানসিক শক্তিও অন্যদের চেয়ে বেশি থাকে। তাঁদের মনোবল খুব শক্ত ধরনের হয়। তাঁরা স্থির, ধৈর্যশীল ও আন্তরিক আচরণের হয়ে থাকেন। তাঁদের আত্মবিশ্বাস ও আত্মমর্যাদাবোধও প্রবল। অল্পে তুষ্টি তাঁদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। বাস, আর কী চাই! কৃতজ্ঞতাবোধের অনুশীলন নিশ্চিত করতে পারলে অন্যের সঙ্গে নিজেকে তুলনা করার মানসিকতা কোন ফাঁকে মিলিয়ে যাবে হাওয়ায়, বুঝতেই পারবেন না।

সূত্র: রিডার্স ডাইজেস্ট

Related articles

Recent articles

spot_img